রাবি নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র-শিক্ষক ঐক্য’র বিবৃতি

  • 76
    Shares

নিজস্ব প্রতিনিধি  : ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বিভিন্ন পেশার মানুষকে ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-ছাত্রসহ সকল আটকৃত সকলের মুক্তির দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র-শিক্ষক ঐক্য। আজ শুক্রবার (২৬ জুন) বিকেলে অনলইনের মাধ্যমে তাঁরা বিবৃতি প্রকাশ করেন। এছাড়াও এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন তাঁরা।

নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র-শিক্ষক ঐক্য-এর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, একটি বহুমাত্রিক, উদার গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের আকাঙ্খা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা। স্বাধীন বাংলাদেশের সকল নাগরিক তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার নির্বিঘ্নে চর্চা করবেন, রাষ্ট্র সকল নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করবে এই আমাদের চাওয়া। কিন্তু আজ গভীর উদ্বেগের সাথে আমরা লক্ষ্য করছি, নির্দ্বিধায় মত প্রকাশের নাগরিক অধিকার সংকুচিত হয়ে পড়ছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের লাগামহীন ব্যবহার এবং অনেক ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত আক্রোশ চরিতার্থ করতে এই আইনের অপব্যবহার এক ভীতির পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। একটি রাষ্ট্রের সুষ্ঠু এবং সুস্থ পরিচালনার জন্যই নাগরিকের মত প্রকাশের পূর্ণ স্বাধীনতা থাকা প্রয়োজন।

সাম্প্রতিক সময়ে আমরা দুঃখের সাথে লক্ষ্য করলাম, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে কিছু মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষক, ছাত্র, কার্টুনিস্ট, সংবাদকর্মী, রাজনীতিবিদ, এমনকি ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক করা হয়েছে। এটি বাংলাদেশের মর্যাদা বিশ্ববাসীর চোখে ক্ষুণ্ণ করেছে।

আমরা মনে করি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের এই লাগামহীন অপপ্রয়োগ বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-ছাত্রসহ সকলের আশু মুক্তি দাবী করছি। এ ব্যাপারে সরকার একটি কল্যাণকামী ও সুচিন্তিত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে, এই আমাদের প্রত্যাশা।

বিবৃতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ জন শিক্ষক স্বাক্ষর করেছেন।

প্রসঙ্গত গত ১৮ জুন রাবির এক অধ্যাপক এই আইনে গ্রেফতার হন।

 

বাংলা প্রবাহ ২৪ / এএ ডি

শর্টলিংকঃ